ইম্যাক্স : বিভিন্ন টুলে প্রবেশকরন

ইশেল যা লিনাক্সের কমান্ড লাইনের মত কাজ করে :


M-x eshell

গনু ডিবাগার :


M-x gdb

শেল অথবা কমান্ড প্রোম্পট(যে অপারেটিং সিস্টেম ব্যবহার করেন তার উপর নির্ভরশীল) :


M-x shell
Advertisements

ইম্যাক্স : ব্যবহারের সুবিধাসমুহ

১) লিনাক্স কমান্ড লাইনের কমান্ডের সাথে ইম্যাক্সের কমান্ড প্রায় সম্পুর্ণ মিলে যায়।

২)ইলিস্প এর সাহায্যে ইম্যাক্সকে যেভাবে খুশি সেভাবে কাস্টোমাইজ করা যায়।

৩)টেক্সট এডিটর হলেও এর কাজ আইডিই এর মত। এর মধ্যে থেকেই ডিবাগিং,কম্পাইলিং,প্রোগ্রাম এক্সিকিউট করা সম্ভব।

৪)লিনাস ট্রভল্ডাস এই টেক্সট এডিটর ইউস করে।(গুজবও হতে পারে।ফেমাস মানুষের কি আর শান্তি আছে?)

৫)মাউসে হাত দিতে হয় না,কমান্ড দিয়েই কাজ করা সম্ভব। তাই কাজ করা যায় খুবই দ্রুত, যা নোটপ্যাড বা আইডিই তে কল্পনাও করা যায় না।

৬)গুরুত্বপূর্ণ প্রোগ্রামার যারা ইম্যাক্স ব্যবহার করে তাদের লিস্ট এই লিঙ্কে।

ইম্যাক্স : ব্যাকআপ ফাইল নির্দিষ্ট ফোল্ডারে রাখা

ইম্যাক্সে ~ যুক্ত ফাইলগুলো হচ্ছে ব্যকআপ ফাইল। এই ব্যকআপ ফাইল আপনি চাইলে নির্দিষ্ট কোন ফোল্ডারে রাখতে পারেন। তার জন্য যা করতে হবে ;

প্রথমে ইম্যাক্সের হোম ফোল্ডারে যে .emacs.d ফোল্ডার আছে তাতে saves নামে একটি  ফোল্ডার ক্রিয়েট করুন। এরপ্র ইম্যাক্স খুলে লিখুন

M-x customize group

এন্টার দেয়ার পর লিখুন

backup

Backup Directory Alist এ গিয়ে show value তে ক্লিক করে যে দুটি অপশন আসবে তাতে লিখুন

Regex matching filename : *.
Backup directory name : ~/.emacs.d/saves

এন্টার চাপার পর C-x C-s চেপে সেভ করুন। ব্যস হয়ে গেল।

ইম্যাক্স : পূর্ববর্তী উইন্ডোতে যাওয়া

সাধারনত  C-x o চেপে ইম্যাক্সে পরের উইন্ডোতে যাওয়া হয়। কিন্তু পূর্ব্বর্তী উইন্ডোতে কিভাবে যাবেন?

M-x previous-multiframe-window লিখে এন্টার চাপলে পূর্ববর্তী উইন্ডোতে যাওয়া যাবে। কিন্তু এর চেয়ে কোন key চেপে যেতে পারলে সুবিধা হত। কিন্তু সম্ভবত previous-multiframe-window এর জন্য কোন কি বাইন্ডিং ফিক্সড নেই। তাই নতুন কি বাইন্ডিং ফিক্সড করতে হবে। যেহেতু C-x o চেপে পরের উইন্ডোতে যাওয়া যাবে, তাই C-x O (বড় হাতের o) দিয়ে আমরা পূর্ববর্তী উইন্ডোতে যাওয়ার ব্যবস্থা করব। এর জন্য .emacs কনফিগারেশন ফাইলে নিচের লাইন যোগ করতে হবে,

(global-set-key (kbd "C-x O") 'previous-multiframe-window)

এখন ইম্যাক্স রিস্টার্ট করলে C-x O কি বাইন্ডিং কাজ করবে।

ইম্যাক্স : ~ এবং # ফাইলের তাৎপর্য

ইম্যাক্সে এডিট করার পর ২ ধরনের ফাইল দেখা যায়,

১) শেষে ~ যুক্ত থাকে।

২) শুরুতে এবং শেষে # সাইন যুক্ত থাকে।

কোন ফাইল এডিট করলে ঐ নামের আরেকটি ফাইল তৈরী হয় যার শেষে ~ সাইন যুক্ত থাকে। ~ সাইন যুক্ত ফাইল হচ্ছে ফাইলটি এডিট করার পূর্বের অবস্থা, আর অন্যটি হচ্ছে সেভ করা ফাইল। ভিম এডিটরের বেলাতেও একই ব্যাপার ঘটে।

আর কোন ফাইল এডিট করে সেভ না করলে তখন নতুন ফাইল তৈরী হয় যার শুরু ও শেষে # থাকে। এটি রিকভারী ফাইল।

ইম্যাক্স : লাইন নাম্বার প্রদর্শন

প্রোগ্রামিং করার সময় কম্পাইলিং এরর হলে একটি নির্দিষ্ট লাইনে যেতে হয়। M-g M-g এর পর লাইন নাম্বার লিখে এন্টার চেপে ঐ লাইনে যাওয়া যায়। ইম্যাক্সে লাইন নাম্বার দেখালে তাহলে প্রোগ্রামিং করতে অনেক সুবিধা হয়। নিচের লাইন .emacs ফাইলে যোগ করলে ইম্যাক্সে লাইন নাম্বার প্রদর্শন করে।

(global-linum-mode 1)

ইম্যাক্স : ট্যাব ওয়াইডথ চার স্পেসের সমান করা

.emacs ফাইলে নিচের লাইন যোগ করূন

(setq tab-width 4 indent-tabs-mode t)

চারের জায়গায় যত লিখবেন ট্যাব তত স্পেসের সমান হবে। তবে স্ট্যান্ডার্ড হচ্ছে চার।

ইম্যাক্স : সি প্রোগ্রামিং এ অটো ইন্ডেন্টেশন

.emacs ফাইলে নিচের লাইন যোগ করলে প্রত্যেকবার এন্টার কী চাপার পর অটোমেটিক ইন্ডেন্টেশন হয়ে যাবে।

(require 'cc mode)(define-key c-mode-base-map (kbd "RET") 'newline-and-indent)

ইম্যাক্সে C-j চেপে অটো ইন্ডেন্টেশন করা হয়। উপরের লাইন লেখার ফলে আপনি যখন .c এক্সটেনশনযুক্ত কোন ফাইল এডিট করবেন,তখন প্রতিবার এন্টার চাপলে তা C-j চাপার কাজ করবে,অর্থাৎ অটো ইন্ডেন্টেশন হবে।

ইম্যাক্স : ব্যাকগ্রাউন্ড কালো করা

.emacs ফাইলে নিচের তিনটি লাইন যোগ করলেই হবে।

(set-background-color "black")
(set-foreground-color "white")
(set-cursor-color "white")

এই লাইন তিনটির কাজ যথাক্রমে ব্যাকগ্রাউন্ড কালো,ফন্ট সাদা এবং কারসর সাদা করা। আপনি চাইলে অন্য কালারও করতে পারেন।